Bangla24.Net

শনিবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

স্বাধীনতা পদক পেতে পারেন যারা

ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ভাষণে স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। আর স্বাধীনতার ঘোষণা আসে ২৬ মার্চ। ইতিহাসের বহু পরিক্রমা পার করেছে এই অগ্নিঝরা মার্চ।

বাঙালি জাতীর স্বাধীনতার মাসটি স্মরণে দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার ঘোষণা করা হয়। পুরস্কারটির নাম স্বাধীনতা পুরস্কার। জাতীয় জীবনে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অসাধারণ ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে বিশিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এই পুরস্কার দেয়া হয়। জানা গেছে, সাধারণত এই পুরস্কারের সংখ্যা ১০টি হয়। তবে প্রধানমন্ত্রী চাইলে এ সংখ্যা কমাতে বা বাড়াতে পারেন।

সূত্র জানায়, সম্প্রতি এবারের স্বাধীনতা পুরস্কারের জন্য জাতীয় পুরস্কার সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি বিভিন্ন ক্ষেত্রে ২১ জনের নাম সুপারিশ করেছেন। এর মধ্যে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদান রাখার জন্য সাতজনের নাম সুপারিশ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন-বীর মুক্তিযোদ্ধা কর্নেল (মরহুম) শওকত আলী, ডা. মোহাম্মদ আনিসুল হাসান, আবুল খায়ের মোহাম্মদ মহেব্বুর রহমান (আবুল খায়ের), বীর মুক্তিযোদ্ধা ফ্লাইট সাজের্ন্ট মো. ফজলুল হক, আবদুর রাজ্জাক, ডা. আখলাকুল হোসাইন আহমেদ (মরহুম) ও গোলাম হোসেন।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে ড. মোবারক আহমেদ খান। চিকিৎসা বিদ্যায় ইমেরিটাস অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল।

শিক্ষায় প্রয়াত ড. রংগলাল সেন। অধ্যাপক মো. সোহরাব আলী। সাহিত্যে আবু জাফর শামসুদ্দীন ও আসাদ চৌধুরী (মরহুম)। সংস্কৃতিতে নাসিরউদ্দিন ইউসুফ এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। ক্রীড়ায় তানভীর মাজহার ইসলাম (তান্না), বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আশরাফ আলী। পল্লী উন্নয়নে কামরুল ইসলাম সিদ্দিক। সমাজসেবায় সৈয়দ আবুল হোসেন। গবেষণা ও প্রশিক্ষণে বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট।

সূত্র জানায়, স্বাধীনতা পুরস্কার নিয়ে এই প্রস্তাব পর্যালোচনার জন্য গত ২৮ জানুয়ারি প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে মোট ৮৯টি মনোনয়ন প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করা হয়। এর মধ্যে ৭২ জন ব্যক্তি ও ১৭টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

এসব সুপারিশ নিয়ে জাতীয় পুরস্কার সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটিতে ২১ জনের নাম সুপারিশ করা হয়। তবে কমিটি বলেছে, প্রধানমন্ত্রী ইচ্ছে করলে নীতিমালা অনুযায়ী এই সংখ্যা কমাতে কিংবা বাড়াতে পারেন।
তথ্য মতে, ২০২৩ সাল পর্যন্ত সর্বমোট ৩১৩ জন ব্যক্তি ও ৩১টি প্রতিষ্ঠানকে স্বাধীনতা পুরস্কার দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সুবিধা মতো সময়ে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতা পদক প্রদান করবেন।

সৌজন্যে : সময়ের আলো

শেয়ার