Bangla24.Net

বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ , ৯ ফাল্গুন ১৪৩০

হবিগঞ্জে পৃথক ঘটনায় এক বছরে ৩১ খুন

গত এক বছরে হবিগঞ্জে আধিপত্য বিস্তার, পূর্বশত্রুতা ও জমিজমা নিয়ে বিরোধসহ বিভিন্ন কারণে ৩১ জনকে হত্যা করা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। গণমাধ্যমের খবরে এমন তথ্য এসেছে।

২০২৩ সালের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত জেলায় ৯টি উপজেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশী হত্যাকাণ্ড হয় হাওরবেষ্টিত বানিয়াচং উপজেলায়। এসব হত্যাকাণ্ড হাওরবাসীর জন্য অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

পুলিশ ও র‍্যাবের অভিযানে অধিকাংশ খুনের সঙ্গে জড়িত অনেকে গ্রেপ্তার হয়েছেন; তারপরও কমছে না এসব হত্যাকাণ্ড গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী এক বছরে জেলার বানিয়াচং উপজেলায় ১১টি, চুনারুঘাটে ৪টি, লাখাই, হবিগঞ্জ সদর, বাহুবল ও মাধবপুর উপজেলায় ৩টি করে, আজমিরিগঞ্জে ২টি এবং নবীগঞ্জ ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় ১টি করে হত্যাকাণ্ড ঘটে।

এছাড়া আধিপত্য বিস্তার, পূর্বশত্রুতা ও জমিজমা নিয়ে বিরোধসহ বিভিন্ন কারণে এক বছরে সংঘর্ষের ঘটনায় আরও অন্তত ৮৬১ জন আহত হয়েছেন।

এর মধ্যে বানিয়াচং উপজেলায় ৪০০, বাহুবলে ৭০, নবীগঞ্জে ৬৫, মাধবপুরে ৪৪, লাখাইয়ে ১৩৫, আজমিরিগঞ্জে ৯৫, চুনারুঘাটে ১০ এবং হবিগঞ্জ সদর উপজেলায় আরও অন্তত ৪২ জন আহত হন। এসব ঘটনায় সাধারণ মানুষ অনেকটা শংকিত। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বলছে, পূর্বের যেকোনো সময়ের তুলনায় অনেকটা কমে এসেছে।

স্থানীয়রা জানান, বিট পুলিশিং সভাসহ বিভিন্নভাবে দাঙ্গা বিরোধী প্রচারণা চালালেও হবিগঞ্জ জেলায় দাঙ্গা ঠেকানো যাচ্ছে না। এ বিষয়ে সুপরিকল্পিত উদ্যোগ জরুরী। এক্ষেত্রে শীর্ষস্থানীয় জনপ্রতিনিধি, পুলিশ ও জেলা প্রশাসনকে আরও বেশি আন্তরিক হতে হবে।

এ বিষয়ে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, ‘হত্যাকাণ্ডসহ কোনো অপরাধ যাতে বৃদ্ধি না পায় এ জন্য আমরা সতর্ক রয়েছি। সব জায়গায় আমাদের পুলিশিটহল জোরদার করা হয়েছে। সব হত্যা মামলার আসামিদের হয়তো আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে বেশির ভাগ মামলার আসামিদের আটক করে বিচারের মুখোমুখি করা হয়েছে।’

শেয়ার