Bangla24.Net

শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভূমি ব্যবস্থাপনা আইন ভঙ্গে লাখ টাকা জরিমানা

ভূমি ব্যবস্থাপনা আইন ভঙ্গে দুই হাজার টাকা জরিমানার পরিবর্তে এক লাখ টাকা বা এক মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করার শাস্তির বিধান রেখে ‘ভূমি সংস্কার আইন ২০২৩’-এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার (২৮ আগস্ট) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে বিকেলে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন জানান, সামরিক শাসনামলে যে আইনগুলো ছিল সেগুলো প্রয়োজন অনুসারে বাতিল করে নতুন আইন করতে বলা হয়েছিল। আমাদের ভূমি সংস্কার অধ্যাদেশ ১৯৮৪ সংশোধন করে নতুন করে ভূমি সংস্কার আইন ২০২৩ এর খসড়া, ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে উপস্থাপন করা হয়েছিল। সেটি চূড়ান্ত অনুমোদন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এই আইনে আগে যে ভূমি সংস্কার অধ্যাদেশ ছিল সেখানে যে ধারাগুলো ছিল তা পরিবর্তন করে বা কয়েকটি জায়গায় সামান্য আপডেট করা হয়েছে। যেমন আগে ছিল ৬০ বিঘার বেশি কেউ কৃষি জমির মালিক থাকতে পারবে না। এখন আইনে বলা হয়েছে যে, বিশেষ ক্ষেত্রে এটি শিথিল যোগ্য। সে বিষয়গুলো চিহ্নিত করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে কোনো সমবায় সমিতির জমির জন্য এটি প্রযোজ্য হবে না। কোনো শিল্প প্রতিষ্ঠান নিজস্ব কারখানায় ব্যবহৃত কাঁচামাল উৎপাদনের জন্য কোনো ভূমি ব্যবহার করতে চাইলে তখন এটি প্রযোজ্য হবে না। এছাড়া রফতানিমুখী শিল্প, কৃষি পণ্য প্রক্রিয়াজাত করার ক্ষেত্রে যদি প্রয়োজন হয় তখন প্রযোজ্য হবে না।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ভূমি ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়ন ও তথ্য ভাণ্ডার সংরক্ষণের একটি নতুন ধারা সংযোজন করা হয়েছে। যেটি আগের আইনে ছিল না। ভূমি ব্যবস্থাপনার কোনো আইন যদি কেউ ভঙ্গ করে তখন দুই হাজার টাকা জরিমানার ব্যাপার ছিল। নতুন আইনে এক লাখ টাকা বা এক মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। সে শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে।

৬০ বিঘার চেয়ে যারা অনেক বেশির সম্পত্তির মালিক তাদের ক্ষেত্রে কী হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যদি এরকম কেউ থাকে এবং যদি কেউ সে আইনের আওতায় মামলা করেন তাহলে নতুন আইনে যে শাস্তির বিধান রয়েছে। তাদের চিহ্নিত কীভাবে করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আইনে-তো সে বিষয় বলা থাকে না।

আইনে বলা আছে, যদি কেউ ৬০ বিঘার বেশি জমি নতুন করে কেনেন। তখন ওই অংশটা সরকারের নজরে এলে সরকার সেটা নিয়ে নিতে পারবে। আইনে যে ধারাটা সংযোজন করা হয়েছে। সেটি হলো এই যে আপনার ৬০ অধিক আপনি নতুন কোনো মালিকানা নিতে পারবেন না। নতুন কোনো মালিকানা নিতে পারবেন না। বলা হয় নাই এখানে ৬০ বিঘার বেশি থাকলে আপনাকে ছেড়ে দেবে। যদি আপনার ৬০ বিঘা কৃষি জমি থাকে তাহলে নতুন করে আর মালিকানা নিতে পারবেন না। উত্তরাধিকার সূত্রে হোক বা নিজের কেনা হোক।

সূত্র : সময়ের আলো

শেয়ার