Bangla24.Net

বুধবার, ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিঙ্গাপুর থেকে গম আমদানির উদ্যোগ

সিঙ্গাপুর থেকে ৫০ হাজার টন গম আমদানির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। প্রতি মেট্রিকটন গমের দাম পড়বে ৩০৪.৮৩ ডলার। এতে মোট ব্যয় হবে বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৬৬ কোটি ৮৯ লাখ ৪৪ হাজার টাকা।

অর্থমন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে আন্তর্জাতিক উৎস থেকে ৬ লাখ মেট্রিকটন গম আমদানির জন্য বরাদ্দ রাখা হয়। সে অনুযায়ী গত ৯ আগস্ট সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় ৫০ হাজার মেট্রিকটন গম কেনার প্রস্তাবে অনুমোদন দেয়া হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় বাজেটে গম আমদানির নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে খাদ্য অধিদফতর আন্তর্জাতিক উন্মুক্ত দরপত্র আহ্বান করে। নির্ধারিত সময়ে ১০টি শিডিউল বিক্রি হয়। এর মধ্যে চারটি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান দরপত্র দাখিল করে। মূল্যায়ন কমিটি চারটি দরপত্রকেই রেসপন্সিভ ঘোষণা করে।

দরপত্রে অংশগ্রহণকারী সিঙ্গাপুরের একটি প্রতিষ্ঠান প্রতি মেট্রিকটন গমের দাম ৩০৪.৮৩ মার্কিন ডলার উল্লেখ করে সর্বনিম্ন দরদাতা নির্বাচিত হয়।

অন্য তিন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুটি প্রতিষ্ঠান যথাক্রমে প্রতি মেট্রিকটন ৩০৯.০০ ডলার ও ৩১৩ মার্কিন ডলার দর দেয় এবং সুইজারল্যান্ডের একটি প্রতিষ্ঠান প্রতি মেট্রিকটন গমের দাম ৩২২.২২ মার্কিন ডলার উল্লেখ করে।

দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি বিদ্যমান বাজারমূল্যেও গ্রহণযোগ্য মাত্রার সঙ্গে প্রাপ্ত সর্বনিম্ন দরের সামঞ্জস্যতা যাচাইয়ের লক্ষ্যে গত ৫ আগস্ট পর্যন্ত অ্যাগ্রিমার্কেট উইকলি ইনডেক্স ওয়েবসাইট থেকে সর্বশেষ এফওবি দরের সঙ্গে জাহাজ ভাড়াসহ অন্যান্য সম্ভাব্য আনুষঙ্গিক খরচ বিবেচনা করে সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠানের দেয়া দরের সঙ্গে প্রাক্কলিত বাজারমূল্যের তালিকা করে।

এতে গমের দাম রাশিয়া থেকে প্রতি মেট্রিকটন ৩০৫.০৮ মার্কিন ডলার, ইউক্রেন থেকে ২৬৬.৬৬ মার্কিন ডলার, ফ্রান্স থেকে ৩১৩.৯৯ মার্কিন ডলার, আর্জেন্টিনা থেকে ৩৯৭.২৫ মার্কিন ডলার, অস্ট্রেলিয়া থেকে ৩৩৩.৮৭ মার্কিন ডলার, কানাডা থেকে ৪০৪.৪০ মার্কিন ডলার এবং আমেরিকা থেকে ৪০৭.৪৫ মার্কিন ডলার পাওয়া যায়।

খাদ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ১৬ আগস্ট পর্যন্ত দৈনিক খাদ্যশস্য পরিস্থিতি অনুয়ায়ী গমের বর্তমান মজুদ ২ লাখ ১৩ হাজার মেট্রিকটন। ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে সরকারি বিতরণ খাতে ৬ লাখ ৭২ হাজার মেট্রিকটন এবং নিরাপত্তা মজুদ হিসেবে ২ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিকটনসহ মোট ৯ লাখ ২২ হাজার মেট্রিকটন গম প্রয়োজন হবে।

খাদ্য বিভাগের ক্রয় পরিকল্পনা অনুযায়ী আন্তর্জাতিক উৎস থেকে আমদানির জন্য নির্ধারিত পরিমাণ ৬ লাখ মেট্রিকটন। ইতিমধ্যে ৫০ হাজার মেট্রিকটন গম আমদানি করা হয়েছে। অবশিষ্ট ৫ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিকটনের মধ্যে প্যাকেজ-২-এর আওতায় ৫০ হাজার মেট্রিকটন আমদানির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এই প্যাকেজে প্রতি মেট্রিকটন গমের দাম পড়বে ৩০৪.৮৩ ডলার। এর আগের প্যাকেজ-১-এর আওতায় আমদানি করা প্রতি মেট্রিকটন গমের দাম পড়েছে ২৯৭.৪৭ ডলার। অর্থাৎ প্যাকেজ-১-এর চেয়ে প্যাকেজ-২ এ প্রতি মেট্রিকটন গম আমদানি করতে ৭.৩৬ ডলার বেশি ব্যয় করতে হবে।

সূত্র : সময়ের আলো

শেয়ার