Bangla24.Net

বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকায় বিএনপির মহাসমাবেশ

নানা তর্ক-বিতর্ক আর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার পর অবশেষে শান্তিপূর্ণভাবে রাজধানীর নয়াপল্টনে শুরু হয়েছে বিএনপির মহাসমাবেশ। মহাসমাবেশে যোগ দেয়া নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দেয় উৎসাহ-উদ্দঢপনা। উৎসবমুখর পরিবেশেই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে অস্থায়ী মঞ্চে শুক্রবার (২৮ জুলাই) দুপুর ২টা ১০ মিনিটের দিকে কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে মহাসমাবেশের কার্যক্রম শুরু হয়। কোরআন তেলাওয়াত করেন ওলামা দলের আহ্বায়ক মাওলানা নেছারুল হক। সমাবেশের শুরুতে খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের অন্যদের সুস্থতার জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এরপর সমাবেশ শুরু হয়। শুরুর দিকে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম। তিনি বলেন, ‘আজকের মহাসমাবেশ না হওয়ার জন্য সরকার বহু চেষ্টা করেছে। কিন্তু সফল হয়নি। আমরা সমাবেশ করছি, আমরা সফল হয়েছি।’

আব্দুস সালামের পর কেন্দ্রীয় বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা একে একে বক্তব্য দিচ্ছেন। মহাসমাবেশের মঞ্চে উপস্থিত আছেন প্রধান অতিথি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি সবার শেষে বক্তব্য দেবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পদত্যাগ ও নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারসহ এক দফা দাবিতে এ মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এতে সভাপতিত্ব করছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।

মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা। পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকের কয়েক হাজার সদস্য উপস্থিত রয়েছেন বিভিন্ন মোড়ে-মোড়ে। রাখা হয়েছে প্রিজনভ্যান, আর্মড ভেহিক্যাল, সাঁজোয়া যান ও জলকামান।

বিএনপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে গত তিন দিনে রাজধানী থেকে দলের পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। মহাসমাবেশ বানচাল করতে নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি করেন তারা।

শেয়ার