Bangla24.Net

শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লাল গালিচা পেতে দরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য ও বস্ত্র বিতরণ

সুনামগঞ্জে দরিদ্র ও অসহায়দের মধ্যে লাল গালিচা পেতে খাদ্য ও বস্ত্র সামগ্রি বিতরণ করা হয়েছে। খাদ্য ও বস্ত্র সামগ্রি নিতে আসা দরিদ্র ও অসহায়দের পুলিশ লাইন্স ড্রিল শেড-এ সুন্দর সারি সারি করে রাখা চেয়ারে বসানো হয়েছে। পরে আইজিপি তাদের মধ্যে খাদ্য ও বস্ত্র সামগ্রি বিতরণ করেন। এতে খাদ্য ও বস্ত্র সামগ্রি নিতে আসা দ্ররিদ্র মানুষেরা খুব খুশি হয়েছেন।

শুক্রবার (৭ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১ টায় সুনামগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে জেলা পুলিশের উদ্যোগে দরিদ্র ও অসহায়দের মধ্যে খাদ্য সামগ্রি ও বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান ছিলেন, বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন।

সুনামগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে দুইশত দরিদ্র ও অসহায় মানুষকে অতিথির মতো লাল গালিচা পেতে চেয়াারে বসিয়ে খাদ্য ও বস্ত্র সামগ্রি বিতরণ করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইজিপি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ একটি শতবর্ষী প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠান নির্বাচনসহ দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দীর্ঘদিন যাবত সফলভাবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স নীতির আলোকে বাংলাদেশ পুলিশ কাজ করছে। এ নীতির আলোকে আমরা তথ্যপ্রযুক্তি জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদ নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি। এভাবে আইনশৃঙ্খলাবিঘœকারিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, নির্বাচনকালীন সময়ে নির্বাচন কমিশনের অধীনে বাংলাদেশ পুলিশ দায়িত্ব পালনে বদ্ধপরিকর।

তিনি বলেন, সাংবাদিকরা এখন তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে দায়িত্ব পালন করছেন। আগে সাংবাদিকরা বড় বড় ক্যামেরা ও টাইপয়েড ব্যবহার করতেন। সাথে ক্যামেরাম্যানসহ দু’তিন জন লোক লাগতো। এখন স্মার্ট ফোন ব্যবহার করে একজনেই কাজ করতে পারেন। এখন পুলিশও তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে মামলাসহ বিভিন্ন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে বাংলাদেশ পুলিশ এগিয়ে যাচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে আমরা তদন্ত করছি। প্রযুক্তি ব্যবহার করে ক্লুলেস ঘটনা আমরা উদঘাটন করতে পেরেছি।

৩ হাজার ৭৪৭ বর্গ কিলোমিটারের দুর্গম সুনামগঞ্জ জেলা। এ জেলাতে ১২টি থানা রয়েছে। হাওর বেষ্টিত এ জেলায় পুলিশের জনবল বাড়ানো হবে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, মাননীয় প্রধানন্ত্রী নির্দেশনা পুলিশের জনবল বেড়েছে। জনবল বাড়ানোর প্রয়োজন আছে পুলিশের জনবল আরও বাড়ানো হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ এহসান শাহ। এসময় সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি শাহ মিজান শফিউর রহমান, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী, অতিরিক্ত ডিআইজি হুমায়ুন কবিরসহ পুলিশ কর্তকর্তা ও স্থানীয় সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার